Home / ইউটিউব / ইউটিউব সম্পর্কে কিছু অবাক করা তথ্য
ইউটিউব সম্পর্কে কিছু অবাক করা তথ্য

ইউটিউব সম্পর্কে কিছু অবাক করা তথ্য

ইউটিউবের  অজানা তথ্য জেনে নিন

ইউটিউব সম্পর্কে কিছু অবাক করা তথ্য ইউটিউব ব্যবহার করিনি এমন লোকের সংখ্যা হয়তো খুঁজলেও পাওয়া যাবে না। যদিও ইউটিউবের বিকল্প অনেক ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট রয়েছে, তবু আমরা প্রতিদিন ইউটিউবেই ভিডিও দেখে থাকি।যেকোন সমস্যার সমাধান খুঁজতে ইউটিউব আমাদের এখন সবচেয়ে বড় মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে।কেউ কেউ সারাদিন ইউটিউব নিয়েই ব্যস্ত থাকে, কারণ ইউটিউবে এখন সব পাওয়া যাচ্ছে। ইউটিউবের এই দীর্ঘ পথচলায় আছে অনেক মজার ঘটনা, আছে অনেক রেকর্ড গড়ার ইতিহাস। আজ ইউটিউব সম্পর্কে কিছু অবাক করা তথ্য জানাবো, যেগুলো হয়তো আমি কি জানিনা।

ইউটিউবে আমরা যে-সব ভিডিও দেখে থাকি, সেগুলো তৈরির সেলফ মোটিভেটেড কিছু ব্যক্তি অক্লান্তভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আর ইউটিউব ভিডিও তৈরি করে অনেক মানুষ এখন কোন চাকরি বা ব্যবসা না করে ইউটিউবে তার ক্যারিয়ার হিসেবে তৈরি করে নিয়েছেন তাদের মধ্যে অনেকেই আজ কোটিপতি, ইউটিউব থেকে আয় করছেন মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার, তাদের সম্পর্কেও রয়েছে অজানা তথ্য। ইউটিউব দিনদিন এতই জনপ্রিয়তা লাভ করছে যে এখন ইউটিউব থেকেই অনেক সেলিব্রিটি তৈরি হচ্ছে। 

 

ইউটিউবের অজানা তথ্য

  • ইউটিউবের জন্মদাতা 

এখন তো আমরা সবাই জানি ইউটিউব গুগলের একটি ভিডিও শেয়ারিং এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। কিন্তু জানেন কি ইউটিউব কারা বানিয়েছিল এবং তাদের সঙ্গে একজন বাংলাদেশীও ছিলেন?

এখন যে ইউটিউব দেখছেন তার মেইন মাস্টারমাইন ছিল হার্লি, স্টিভ চেন এবং জাওয়াদ করিম, যিনি একজন বাংলাদেশী জার্মান নাগরিক। তারাই ২০০৫ সালে ইউটিউব বানিয়েছিল। তখন তারা সবাই ছিল পেপ্যালের কর্মকর্তা। ইউটিউব প্রতিষ্ঠার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখা এই বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত জার্মাণ নাগরিক, জাওয়াদ করিম সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জেনে নিতে পারেন।

  • ইউটিউবের আরেক নাম Utubeonline

2005 সালে youtube.com নামে সাইটটি তৈরী করা হলেও পরে এর নাম পরিবর্তন করেদেয় Utubeonline।কিন্তু এর ফলে ইউটিউব ব্যবহারকারীদের মধ্যে কনফিউশন তৈরি হয় তারপর আবার ওয়েবসাইটের নাম youtube.com করে দেওয়া হয়

 

  • ইউটিউবের প্রথম ভিডিও

প্রথম ভিডিও ছিল প্রতিষ্ঠাতা জাওয়াদ করিমের যিনি ২০০৫ সালের ২৩ এপ্রিলে একটি চিড়িয়াখানায় ঘুরার সময় ভিডিও করে আপলোড করেন। এই ভিডিওটির টাইটেল ছিল ‘মি এট জু’।

 

  • ইউটিউবের আসল উদ্দেশ্য

শুরুর দিকে ইউটিউবে ছিল অনেকটা ডেটিং সাইটের মতো। যেখানে সবাই তাদের ডেটিং এর ভিডিও আপলোড দিত।কিন্তু আস্তে আস্তে youtube-এর শুরু হয় কনটেন্ট  ক্রিয়েটর দের নিজস্ব উদ্যোগে তুলনায় ইউটিউবে বিপ্লব

 

  • সবচেয়ে বেশি দেখা ভিডিও

মিউজিক ভিডিও ছাড়া ইউটিউবে দেখা সবচেয়ে বেশি ভিউয়ারপ্রাপ্ত ভিডিও ছিল চার্লি বিট মাই ফিংগার। এই ৫৫ মিনিটের ভিডিওতে দুই ভাইয়ের মজার একটা মুহুর্ত দেখানো হয়েছে। এই ভিডিওর বর্তমান ভিউ ৮৬২ মিলিয়ন।

গানের দিক থেকে সবচেয়ে বেশি ভিউ ছিল গাননাম স্টাইল ভিডিওটি। যেটি ২০১২ সালে পোস্ট করা হয় এবং সে বছরেই ভিডিওটি ১ বিলিয়ন ভিউয়ার লাভ করে। বর্তমানে ভিউয়ার সংখ্যা প্রায় ১.৮ বিলিয়ন।

  • সবচেয়ে বেশি ডিসলাইক

নিশ্চয়ই জানেন ইউটিউব ভিডিওতে যেমন লাইক দেয়ার অপশন রয়েছে, তেমনি ভিডিওটি ভাল না লাগলে ডিসলাইক দেয়ার অপশনও রয়েছে। আর এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ডিসলাইক পাওয়া ইউটিউব ভিডিও হচ্ছে জাস্টিন বিবারের মিউজিক ভিডিও “বেবি”। এই মিউজিক ভিডিওটি এখন পর্যন্ত প্রায় ৪ কোটি ৪০ লক্ষ ডিসলাইক পেয়েছে।

  • ইউটিউবের সব ভিডিও দেখতে কত সময় লাগবে

ইউটিউবে প্রতিদিন প্রায় 500 ঘন্টার বেশি ভিডিও আপলোড হচ্ছে। এটা জেনে সত্যিই অবাক হবেন আপনি যদি ইউটিউবের সব ভিডিও দেখতে চান তাহলে আপনার ১৭০০ বছর সময় লাগবে।

  • ইউটিউবে সুপারহিরো কারা

 ব্যাটম্যানের ভিডিও এই পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি বার দেখা হয়েছে তাই ব্যাটম্যান ইউটিউব এর সুপার হিরো। ইউটিউবে ব্যাটম্যানের ভিডিও প্রায় ৩.৫ বিলিয়ন বার দেখা হয়েছে।

 

  • ইউটিউব হিট/ভিজিটর

২০১১ সালেই ইউটিউব ১ ট্রিলিয়ন ভিউয়ারের এক বিশাল মাইলফলক অর্জণ করে। যার অর্থ পৃথিবীতে বসবাস করা ১৪০ জন মানুষের মধ্যে ১ জন ইউটিউব দেখে।কনটেন্ট ভালো হলে ভিউ যে আমাদের কোথায় নিয়ে পৌঁছাতে পারে সেটা আমরা কল্পনাও করতে পারি না

 

  • ইউটিউব বিজনেস কিভাবে করে

ইউটিউব তাদের নিজেদের পার্টনারদের কাছ থেকে যে অর্থ উপার্জন করে তার একটা লিভিং আমাদের সাথে শেয়ার করে।ইউটিউব  এর প্রায় ১০ হাজার অ্যাডভারটাইজ কোম্পানির সাথে পার্টনার আছে যেখানে ডিজনি, টার্নার, ইউনিভিশনের মত চ্যানেলও আছে। প্রতি বছরে এই পার্টনারশিপ  এর সংখ্যা আরো বাড়ছে। বর্তমানে মিলিয়ন বিলিয়ন পার্টনার আছে যারা ইউটিউবকে টাকা দিচ্ছে তাদের প্রোমোশনাল ভিডিও দেখানোর জন্য। এবং কনটেন্ট ক্রিকেটারদের থেকে তাদের টার্গেটেড কাস্টমারদের কাছে পৌঁছানোর জন্য

 

  • ইউটিউব বেশি দেখে কারা ?

ইউটিউবের জন্ম আমেরিকায় তাই আমেরিকা থেকেই ৩৫% ট্রাফিক ইউটিউবে আসে। আর বাকি দেশ থেকে ৭০% আসে। ইউটিউব প্রায় ৬১ টি ভাষায় এভেইলেবল আছে।

  •  সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন ইউটিউব

ইউটিউবই এখন সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন।  হ্যাঁ, আপনি অবাক হবেন যে, পৃথিবীর প্রায় ৯০ ভাগ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী এখন যে কোন কিছু জানার জন্য গুগল,   বিং বা ইয়াহুতে সার্চ না দিয়ে ইউটিউবেই সার্চ দিয়ে থাকেন।

 

  • ইউটিউব ব্যান ১০টি দেশে 

এটা সত্য যে অনেক দেশেই ইউটিউবকে ব্যান করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ২০০৯ সালে চীন এবং ২০১২ সালে পাকিস্তান ইউটিউব ব্যান করে। যার কারণ ছিল ইনোসেন্স অফ মুসলিম ক্লিপ ভিডিও। মোট ১০টি দেশ ইউটিউব ব্যান করে তারা হল ব্রাজিল, তুর্কি, জার্মানি, লিবিয়া, থাইল্যান্ড, তুর্কমেনিস্তান, চীন, উত্তর কোরিয়া, ইরান এবং পাকিস্তান।

  • মোবাইল বনাম পিসি 

৩০% পিসি ইউজ করেন ইউটিউব ভিডিও দেখার জন্যে আর  ৭০% ইউটিউব ভিউয়ার মোবাইল থেকেই দেখেন এবং ইউটিউবের জনপ্রিয়তা এখন আরও বাড়ছে। এর প্রধান কারণ ইউটিউবে অনেক নতুন নতুন ক্রিয়েটর তৈরি হচ্ছে। আর এই ক্রিয়েটররাই মূলত ইউটিউবকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। 

  • গুগলে প্রতি মিনিটে প্রায় ৩৮ লক্ষবার সার্চ করা হয়।

 

গুগলে প্রতি মিনিটে প্রায় ৩৮ লক্ষবার সার্চ করা হয়। আর প্রতিদিনে সার্চ হয় প্রায় ৫৬০ কোটিবার। বর্তমা র্ত নে ইন্টারনেটের মাধ্যমে সমস্যার সমাধান খুঁজেখুঁ বের করাটা একটি সাধারন ব্যাপার হিসেবে দাড়িযেছে। অনেকে আবার ভিডিও দেখে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করে থাকে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে জনপ্রিয় প্লাটফরম হলো YouTube। প্রতিদিন ইউটিউবে প্রায় ১০০ কোটি ঘন্টারও বেশি ভিডিও মানুষ দেখে থাকে।

 

এবার জেনে নেয়া যাক ইউটিউব আরো অবাক করা কিছু তথ্য

 

  • ইউটিউবে 2 বিলিয়নেরও বেশি সক্রিয় ব্যবহারকারী রয়েছে, ইন্টারনেটে সমস্ত লোকের প্রায় এক তৃতীয়াংশ।
  • ইউটিউবে প্রতি 24 ঘন্টার মধ্যে 1 বিলিয়ন ঘন্টারও বেশি ভিডিও দেখা হয়।
  • অবিচ্ছিন্ন আপগ্রেডের মাধ্যমে আপনি ইন্টারনেটের জনসংখ্যার 95% আচ্ছাদন করে 80 টিরও বেশি ভিন্ন ভাষায় YouTube নেভিগেট করতে পারেন।
  • সাত বছর বয়সী ইউটিউব তারকা রায়ান তার চ্যানেল টয় রিভিউ থেকে 2018 সালে 22 মিলিয়ন ডলার আয় করেছেন।
  • প্রতি মিনিটে, ইউটিউবে প্রতিদিন 500 ঘন্টারও বেশি ভিডিও আপলোড করা হয়।
  • ইউটিউব 2005 সালে পেপালের তিন প্রাক্তন কর্মচারী দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।
  • প্রথম ভিডিওটি এপ্রিল ২০০৫ এ সান দিয়েগো চিড়িয়াখানায় এর কৌফাউন্ডার জাভেদ করিম দ্বারা আপলোড করা হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Show Buttons
Hide Buttons
error: Content is protected !!
Skip to toolbar