Home / টিপস অ্যান্ড ট্রিক্স / কুঁচিয়া চাষ পাল্টে দিতে পারে বেকার জীবন
কুঁচিয়া চাষ পাল্টে দিতে পারে বেকার জীবন

কুঁচিয়া চাষ পাল্টে দিতে পারে বেকার জীবন

ভিন্ন ধরনের মাছ “কুঁচিয়া” পাল্টে দিতে পারে বেকার জীবন। কুঁচিয়া নাম শুনলেই হয়তোবা অনেকে চমকে উঠবে , আসলে কুঁচিয়া এক ধরনের মাছ। এ মাছ চাষ করে অনেক বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব। বাংলাদেশ সহ ইউরোপ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার নানা দেশে এ মাছের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। কুঁচিয়ার ইংরেজি নাম(Asian swamp eel) একটি ইল প্রজাতির মাছ। এবং (Sybranchidae) পরিবারের অন্তরগত মাছটির বৈজ্ঞানিক নাম ( Monopterus cuchia)| । বাংলাদেশে ২০১২  সাল থেকে এটি সংরক্ষণ করা হচ্ছে। বর্তমানে বৈদেশিক আয়ের জন্যে এর কদর বেড়ে গেছে।

আরো পরুন : জিনস কিনতে

কুঁচিয়া থেকে বর্তমানে বাংলাদেশের প্রায় ৩০ টি জেলার চাষীরা বৈদেশিক মুদ্রা আয়  করছে এবং বাণিজ্যিক ভাবে এটি চাষ হচ্ছে। মৎস অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ি ২০১৫-১৬ অর্থবছরে মুক্ত জলাশয়ে উৎপাদন হয়েছে ৩৬ মেট্রিক টন এবং ২০১৭-১৮ অর্থবছরেএর পরিমান বেড়ে দাঁড়ায় ৯৩ মেট্রিক টন ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বৈদেশিক মুদ্রা আসে ১৮৪ কোটি ২৮ লাখ টাকা এবং পরের বছরে উৎপাদন বেশি হওয়ায় আয় হয় ২০৪ কোটি ১ লক্ষ টাকা।

এ মাছের ঔষধি গুণও প্রচুর। যারা অ্যাজমা, ডায়া বেটিস ও রক্তশূণ্যতায় ভূগছেন ,তাদের এসব রোগের নিয়ন্ত্রনে এ মাছের উপযোগিতা আছে । মৎস অধিদপ্তরের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে এ মাছের রক্ত খেলে শারীরিক দুর্বলতা ও রক্তশূণ্যতা কমে।

ছয় মাসে ২০ কেজি কুঁচিয়া থেকে ২০ হাজার পোনা উৎপাদন করা সম্ভব যার ওজন ৫০ কেজিরও বেশি হতে পারে। ১ কেজি কুঁচিয়ার বাজার মূল্য ৩০০-৪০০ টাকা। চাষীরা মৌসুমে ২০ থেকে ১ লক্ষ টাকার কুঁচিয়া বিক্রি করছেন।

প্রকৃতিক পুকুর বা জলাশয়ে এবং বাড়ির আশে পাশে কংক্রিটের স্থাপনার মধ্যে বা ডিচ তৈরির মাধ্যমেও এ মাছ চাষ করা সম্ভব । যা খুবই সহজ লভ্য এবং কম খরচে করা যায়।

Check Also

জেনে নিন কুরবানি করার নিয়ম এবং কুরবানি করতে না পারলে করণীয়।

কোরবানি কার উপর ওয়াজিব প্রাপ্তবয়স্ক, সুস্থ মস্তিষ্কসম্পন্ন প্রত্যেক মুসলিম নর-নারী—যে ১০ জিলহজ ফজর থেকে ১২ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Show Buttons
Hide Buttons